শিরোনাম :
‘ভূঞাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটি’র নতুন কমিটি আত্মপ্রকাশ! ভূঞাপুরে মালা হত্যায় জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন ভূঞাপুরে ৮৭০ পিস ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক! ভূঞাপুরে মর্মান্তিক মটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ১, আহত ৩ ভূঞাপুরে উপ-প্রকৌশলী মিরাজুলের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি ও ঘুষের অভিযোগ ভূঞাপুরে ঐতিহ্যবাহী বাউল গানের আসর অনুষ্ঠিত “যখন ইচ্ছে তখন অফিসে আসবো”-ভূঞাপুর খাদ্য নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা নদী ভাঙ্গনে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের উন্মুক্ত তালিকা করলেন চেয়ারম্যান দিদারুল আলম খান মাহবুব ভূঞাপুরে মতিন সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ ভূঞাপুরে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বনিক সমিতির মিলাদ-দোয়া ও কাঙ্গালীভোজ!

টাঙ্গাইলে তিনঘণ্টা নর্দমার পাশে পড়ে থেকে চিকিৎসাধীন শিক্ষকের মৃত্যু

  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৮ জুলাই, ২০২১
  • ২১৯ দেখেছেন

টাঙ্গাইলের সখীপুর পিএম পাইলট মডেল গভ. স্কুল অ্যান্ড কলেজের জ্যেষ্ঠ সহকারী শিক্ষক ধীরেন্দ্রনাথ দাস (৫৮) টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের বাইরে মারা যান। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ওই দিন বেলা সোয়া তিনটার দিকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের ১০ শয্যার আইসিইউতে আগুন ধরার পর হাসপাতালের বাইরে একটি নর্দমার পাশে খোলা আকাশের নিচে তিন ঘণ্টা পড়েছিলেন ওই শিক্ষক। ওই শিক্ষকের বহু ছাত্রছাত্রী অবহেলায় তাঁদের প্রিয় শিক্ষকের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে অভিযোগ করে ফেসবুকে পোস্ট দেন।’

এদিকে স্বাস্থ্য বিভাগের অব্যবস্থাপনায় শিক্ষক ধীরেন্দ্রনাথ দাসের মৃত্যু হয়েছে অভিযোগ তুলে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগ নেতার ফেসবুকে পোস্ট ভাইরাল হয়েছে। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য আতাউল মাহমুদ গতকাল শুক্রবার এই পোস্ট দেন। তিনি দোষীদের শাস্তি দাবি করেন।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বেলা সোয়া তিনটার দিকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের একটি শয্যার হাই ফ্লো নাজাল ক্যানুলায় আগুন লাগে। ওই সময় করোনা ইউনিটের রোগীরা আতঙ্কে হাসপাতালের বাইরে অবস্থান নেন। স্কুলশিক্ষক ধীরেন্দ্রনাথ দাসের স্থান হয় হাসপাতালের বাইরে একটি নর্দমার পাশে। সেখানে রোদ-বৃষ্টিতে ভিজে চরম দুঃসময় কাটে ওই শিক্ষক ও স্বজনদের। সন্ধ্যায় স্বজনেরা তাকে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে নেয়ার চেষ্টা করার সময় তার মৃত্যু হয়।,

স্বজনদের অভিযোগ, হাসপাতালের অবহেলা ও অব্যবস্থাপনার কারণে শিক্ষককে প্রাণ দিতে হয়েছে।

এ ঘটনায় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য এবং বুয়েট ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আতাউল মাহমুদের দেয়া পোস্ট মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। তিনি বলেন, ‘…আগুন লাগে ১০ শয্যাবিশিষ্ট আইসিইউ ইউনিটে। আইসিইউ ইউনিটের রোগীদের সিলিন্ডার সংযুক্ত অবস্থায় অবস্থান হয় রাস্তায়। যার বলি আমার সখীপুরের পিএম পাইলট স্কুলের জনপ্রিয় শিক্ষক ধীরেন বাবু স্যার। মাননীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী আপনাকে আর কী বলব? জাতি শুধু দেখছে স্বাস্থ্যব্যবস্থার দুর্বল দিকগুলো। আমাদের শেরপা শেখ হাসিনা একা আর কী করবেন? শেখ হাসিনার সব অর্জনকে এভাবে আমরা একের পর এক ম্লান করে দিচ্ছি।’ তিনি এ ঘটনায় দায়ীদের শাস্তি দাবি করেন।

সখীপুর পিএম পাইলট মডেল গভ. স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কে বি এম খলিলুর রহমান অভিযোগ করেন, হাসপাতালের বাইরে নর্দমার পাশে খোলা আকাশের নিচে ধীরেন্দ্রনাথ দাস কয়েক ঘণ্টা পড়ে ছিলেন। আগুন–আতঙ্ক শেষ হওয়ার পর তাকে কেউ ভেতরে নেয়নি। অবহেলায় তার মৃত্যু হয়েছে।,

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো সংবাদ
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি